আজ সোমবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : যশোরে আ.লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা       মালিতে বাংলাদেশি ৩ শান্তিরক্ষী নিহত       প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের খবর ভিত্তিহীন       ৫ নভেম্বর গ্যাটকো মামলায় খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন       ১ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র বানিয়ে দেবে তুরস্ক       যুক্তরাষ্ট্রে রকেট হামলা অনিবার্য : উত্তর কোরিয়া       রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিন : স্পিকার      
গাজীপুরে ইটভাটায় কয়লার বদলে পুড়ছে কাঠ, প্রশাসন নিরব
Published : Wednesday, 11 January, 2017 at 6:05 PM, Count : 146
গাজীপুরে ইটভাটায় কয়লার বদলে পুড়ছে কাঠ, প্রশাসন নিরব এম রানা, গাজীপুর সংবাদদাতা: সরকারি বিধি বিধান অমান্য করে গাজীপুর সিটি-করপোরেশনের জনবসতি এলাকায় তিন শতাধিক ইটভাটায় কয়লার বদলে অবাধে পোড়ানো হচ্ছে কাঠ। 

এসব ভাটায় দেখা যায়, ইটের চেয়ে কাঠখড়ির সংখ্যাই বেশি। সিটি-করপোরেশনের ভেতরে বসতবাড়ীর আশেপাশে, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানের কাছ ঘেষে বেশির ভাগ ইটভাটা স্থাপন করা হয়েছে। এসব ভাটা মালিকেরা আইনকে বৃধাঙ্গুলি দেখিয়ে ইটভাটায় অবাধে কাঁঠ পুড়িয়ে বৃক্ষধ্বংস ও পরিবেশ দুষণ করছে। ফলে এলাকার জনস্বাস্থ্য বিশেষ করে শিশু ও কিশোররা চরম হুমকির মুখে পড়ছে। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সিটি-করপোরেশনের আমবাগ এলাকার সূচি ব্রিক্স, কোনাবাড়ির আব্দুল ওয়াহেদ (৫৫৫) ব্রিক্স, বাইমালের ব্রিক্স লিংকার, জয়েরটেকের ন্যাশনাল ব্রিক্স, মা ব্রিক্স, বাঘিয়া ওলি ব্রিক্স (বিএই চবি), বাঘিয়া হেলাল ব্রিক্স (বি এইচ বি), আলমাছ মনি ব্রিক্স (এ এম বি), বাঘিয়া ন্যাশনাল ব্রিক্স (বি এন বি) মেসার্স জিন্নাত ব্রিক্স  (এম জে বি) ছাড়াও সিটি-করপোরেশনের কড্ডা এলাকার সকল ভাটায় অবাধে জ্বলছে কাঠ। 
এসব ভাটার একটিতেও পরিবেশ অধিদপ্তরসহ ডিসির কোন অনুমোদন নেই। তবুও জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরসহ প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছেন। প্রত্যেকটি ভাটায় পুরনো চিমনি পদ্ধতিতে ইট পোড়ানোর কাজ চলে। অধিকাংশ ভাটার মালিক স্থানীয় প্রভাবশালী ও অঘাত অর্থের ব্যক্তি হওয়ার কারণে এলাকার বসত-বাড়ীর আশেপাশে ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও মানছে না। অপরিকল্পিত ভাবে ভাটা গড়ে উঠলেও সাধারন মানুষ এদের প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। ইটভাটায় কয়লা পোড়ানোর আইন থাকলেও দেখার কেউ না থাকায় এ সুযোগ পেয়ে তারা কয়লার বদলে দেদারছে কাঠ পুড়িয়ে উজাড় করে দিচ্ছে। 

ইট ভাটার নির্গত বিষাক্ত কালো ধোয়ার কারণে পার্শ্ববতী বসবাসরত কচিকাচা কিশোর-কিশোরীসহ জনজীবন মারাত্বক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। ইটভাটার কালো ধোয়ায় বিশেষ করে শিশুদের শ্বাসকষ্টও বাড়ছে এ যেন দানবের আঘাত। 

ইট ভাটার প্রচলিত আইন থাকলেও, গাজীপুরে তার সঠিক কোনো প্রয়োগ করার কেউ নেই বললেই চলে। মহানগরীর এলাকা ছাড়াও জেলার বিভিন্ন অংশে ঘুরে দেখা যায়, প্রকাশ্যেই কয়লার পরিবর্তে কাঁঠ পুড়িয়ে উজাড় করে দিচ্ছে ভাটা মালিকেরা। বেআইনি ভাবে কাঠ পোড়ানোর বিষয় নিয়ে কথা হয় জয়েরটেকের ন্যাশনাল ব্রিক্স এর ম্যানেজারের সঙ্গে, তিনি নাম বলতে নারাজ, ভোরের ডাককে জানান, আমি তো একই পুড়ছি না, দেখেন সব ভাটাতেই কাঠ পুড়ছে। তাছাড়া ভাটার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ডিসি ও পরিবেশ অফিসে যোগাযোগ করেছেন।

এসব ভাটার কারণে বাঘিয়া হাইস্কুল ও প্রাইমারি স্কুল মিলে দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় দের হাজার শিক্ষার্থীরা মারাক্তক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে বলে এলাকাবাসীদের অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন ভাটা মালিকদের বিরুদ্ধে কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া যায়। ফলে প্রতি বছর ভাটা মালিকেরা বে-আইনি ভাবে ইট ভাটার স্থাপন করছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রাহেনুল ইসলামের সঙ্গে ফোনে কথা হয়, তিনি বলেন, গত কয়েক দিন আগে মহানগরীর কড্ডা এলাকায় কয়েকটি ভাটায় জরিমানা করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রশাসনের জনবলের অভাবে ভাটায় কোনা ব্যবস্থা নিতে পারছি না। তবে যে কোনো দিন এসব তালিকা ভূক্ত ভাটা বন্ধ করা হবে।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি