আজ সোমবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : যশোরে আ.লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা       মালিতে বাংলাদেশি ৩ শান্তিরক্ষী নিহত       প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের খবর ভিত্তিহীন       ৫ নভেম্বর গ্যাটকো মামলায় খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন       ১ লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র বানিয়ে দেবে তুরস্ক       যুক্তরাষ্ট্রে রকেট হামলা অনিবার্য : উত্তর কোরিয়া       রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিন : স্পিকার      
জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের পর্যাপ্ত ক্ষমতা থাকবে-প্রধানমন্ত্রী
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 8:53 PM, Count : 63
ভোরের ডাক ডেস্ক : মানুষের সেবা ও উন্নয়নে জেলা পরিষদের হাতে পর্যাপ্ত ক্ষমতা থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সরকারের উন্নয়নকাজের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে নবনির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী গতকাল বুধবার সকালে তার তেজগাঁও কার্যালয়ে জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ পাঠ করানো শেষে দেয়া ভাষণে এ আহ্বান জানান। সংশ্লিষ্ট জেলা পরিষদ আইনটি ২০০০ সালে পাস হওয়ার ১৬ বছর পর গত ২৮ ডিসেম্বর ৫৯টি জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এটিই ছিল জেলা পরিষদের ১৩১ বছরের ইতিহাসে প্রথম সরাসরি নির্বাচন। এদিন ৫৯ জন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে শপথ পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী।      শেখ হাসিনা বলেন, ‘সরকারের উন্নয়নকাজের ধারাবাহিকতা যাতে বজায় থাকে; আমি চাই, আপনারা (জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা) অন্তত সেই দায়িত্বটা ভালোভাবে পালন করবেন। দেশ ও জাতির সেবায় আপনাদের নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কাজ করতে হবে।’ চেয়ারম্যানদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনাদের দায়িত্ব হবে প্রতিটি উন্নয়নকাজ যেন যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করা এবং নিজ নিজ জেলার সার্বিক উন্নয়ন এবং সমস্যা খুঁজে বের করা। কী করলে সেই জেলার আরো উন্নতি হতে পারে, সেদিকে দৃষ্টি দেয়া। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ক্ষমতাকে বিকেন্দ্রীকরণ করে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। তাই মানুষের সেবা নিশ্চিত করার জন্য তার সেই লক্ষ্য সামনে রেখে আমরা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে উদ্যোগ নিই এবং স্থানীয় সরকার আইন পাস করি।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জেলা পরিষদে নির্বাচন এবারই প্রথম হলো। আমরা ইলেকট্রোরাল কলেজের মাধ্যমে এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের আইন পাস করি এবং সেভাবেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।’
মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী সংগঠন বিধায় আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধান উদ্দেশ্য জনসেবা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য দেশের মানুষকে সেবা দেয়া। আমরা যখন স্বাধীনতা অর্জন করি, তখন দেশে সাড়ে সাত কোটি মানুষ ছিল। আজকে ১৬ কোটি মানুষ। আমাদের ভূখ- সীমিত, তার মাঝে এত মানুষের কাছে সেবা পৌঁছানো সত্যিই খুব কষ্টসাধ্য।’ অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিত ছিলেন। স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মো. আবদুল মালেক শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকেরাসহ উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি