আজ বৃহস্পতিবার, ৫ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০ জুলাই ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্তরা ঘরে বসেই পাবেন বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা       বেরোবিতে সিট দখল নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ : আহত ১০       রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি কারাগারে       ৩৫তম বিসিএস : নন ক্যাডারে নিয়োগ পেলেন আরও ১৪৬৬ জন       ৮ বছরে ১০ হাজার এসআইডি কার্ড ইস্যু করা হয়েছে : নৌপরিবহনমন্ত্রী       ভারতের নতুন রাষ্ট্রপতি হলেন রামনাথ কোবিন্দ       ৭ কলেজের আন্দোলন ষড়যন্ত্রমূলক : ঢাবি ভিসি      
গুলিস্তানের ফুটপাতে দিনের বেলা হকার বসতে পারবে না
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 8:53 PM, Count : 50
স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ বলেছেন, কর্মদিবসে গুলিস্তান ও এর আশপাশের এলাকার ফুটপাতে দিনের বেলা কোনো হকার বসতে পারবে না। এ সিদ্ধান্ত আগামী রোববার থেকে কার্যকর করা হবে। গতকাল ?বুধবার নগর ভবনে মেয়র সাঈদ খোকনের সঙ্গে হকার নেতা, স্থানীয় জন প্রতিনিধি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের মতবিনিময় সভায় মেয়র এ কথা বলেন।
মেয়র বলেন, দিনের বেলা বসতে না পারলেও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর হকাররা গুলিস্তান এলাকায় বসতে পারবে। এ ছাড়া তালিকাভুক্ত হকাররা যদি আবেদন করে তাহলে তাদের বিদেশ পাঠানোসহ বিকল্প কর্মসংস্থানে সহযোগিতা করা হবে বলেও জানিয়েছেন মেয়র। এদিকে, রাজধানীকে হকারমুক্ত কর?তে আ?গে তাদেরকে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন হকার নেতারা। একই সঙ্গে হকারদের সিটি করপোরেশন থেকে আইডি কার্ড প্রদানেরও আহ্বান জানান তারা।
সভায় বক্তব্য দেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের  প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবদুল ওয়াহাব ভূঁইয়া, ঢাকা মহানগর পুলিশের      যুগ্ম কমিশনার (ট্রাফিক) মফিজ উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ হকার ফেডারেশনের সভাপতি এম এ কাশেম, বাংলাদেশ ছিন্নমূল হকার লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন মজুমদার, জাতীয় হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি আরিফ চৌধুরী, বাংলাদেশ জাতীয় হকার্স লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম  প্রমুখ।
এ সময় হকার নেতারা বলেন, রাস্তা থেকে হকারদের উচ্ছেদ করলে তারা কোথায় যাবেন? আগে তাদের পুনর্বাসন করুন, পরে উচ্ছেদ করুন। প্রতিটি ফুটপাতে একজন করে লাইনম্যান চাঁদাবাজ থাকেন। একটা ফুটপাতে ১০০ জন থাকলে তাদের নিয়ন্ত্রণ করেন একজন লাইনম্যান নামধারী চাঁদাবাজ। এ লাইনম্যানকে নিয়ন্ত্রণ করেন অসাধু প্রশাসনের লোক ও অসাধু রাজনীতিবিদরা। চাঁদাবাজরা দোকানপ্রতি ২ লাখ থেকে ৫ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করেন। হলিডে মার্কেট নয়, আমরা বিভিন্ন মার্কেট যেদিন বন্ধ থাকে, ওই দিন ওই এলাকায় বসতে চাই উল্লেখ করে হকাররা বলেন, আমাদের তালিকাভুক্ত হকারদের একটি পরিচয়পত্র দেয়া হোক। আমরা নগর ভবনেই বন্ধের দিনে বসতে চাই। চাঁদা দিলে নগর ভবনকেই দেব। এভাবে যেসব মার্কেট যেদিন বন্ধ থাকবে, সেদিন ওখানে হকারদের বসার ব্যবস্থা করে দিন। হকার নেতারা আরো বলেন, সরকার বা সিটি করপোরেশন সপ্তাহে একদিন নির্দিষ্ট ৫টি স্থানে হলিডে মার্কেট চালু করেছে। এটি আমাদের জন্য ইতিবাচক। কিন্তু সপ্তাহের বাকি ৬টি দিন আমরা কি করব? কি খাবো? হকারদের তো পরিবার রয়েছে। এ জন্য তাদেরকে পুনর্বাসন করতে হবে।
লাইনম্যানের বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ট্রাফিক) মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, আমরা লাইনম্যান উঠিয়ে দিচ্ছি। কিন্তু যেখানে বিনা পয়সায় ব্যবসা করার সুযোগ থাকে, সেখানে এ ধরনের অসাধু লোক তৈরি হবেই। তাই হকারদের একটা নীতিমালায় আনা দরকার। তাদেরও দায়িত্ব নিতে হবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি