আজ রবিবার, ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসবে : নৌমন্ত্রী       ছায়েদুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক       শহীদ পুলিশ সদস্যদের প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-আইজিপির শ্রদ্ধা নিবেদন       বাবা-মায়ের পাশে শায়িত হবেন ছায়েদুল হক       জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা       রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা শাসকগোষ্ঠীর দমননীতির বহিঃপ্রকাশ       পঞ্চগড়ে বিজয় বাইসাইকেল র‌্যালি      
বয়সভিত্তিক দলগুলো নিয়েও নেই পরিকল্পনা বাফুফের
Published : Monday, 19 June, 2017 at 9:07 PM, Count : 75
বয়সভিত্তিক দলগুলো নিয়েও নেই পরিকল্পনা বাফুফেরস্পোর্টস রিপোর্টার : ফুটবলে বাংলাদেশ এখন ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। স্মরণকালের ভেতর ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে তলানিতে অবস্থান করছে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে তাদের অবস্থান ১৯৩। সঠিক পরিকল্পনা এবং সীমাহীন অব্যবস্থাপনার ফলে ফুটবলের আজ এই অধ:পতন। দীর্ঘদিন ধরে কোনো কর্মপরিকল্পনাই গ্রহণ করেনি তাদের নিয়ে বাফুফে।
আর করলেও তা ছিলো কাগজেকলমে এবং বক্তৃতায়। তাই জাতীয় দলের ফুটবলাররা এখন ভুটানের মতো দলের সাথে হালি হালি গোল হজম করে। অথচ এক সময় মালদ্বীপ, ভুটানের মতো দলগুলোর বিপক্ষে আমার বড় ব্যবধানে জিততাম। দক্ষিণ এশিয়ার ছোট্ট দেশ মালদ্বীপ দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা করে তারা ফুটবলে তরতর করে এগিয়ে যাচ্ছে। এখন আমারা তাদের সাথে মাঠে নামার পর চিন্তা ভাবনা করি ক গোল হজম করব। অথচ এতো কিছু হবার পরও দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন বাফুফে কোনো কার্যকরি পদক্ষেপ নেয়নি। তারা এখনো নীরব বলা চলে।
এখন তাদের একমাত্র ভরসাস্থল নারী দল। তাদের পারফরম্যান্সের দিকেই তাদের দৃষ্টি। এখন বর্তমান সময়ে বাফুফের সামনে তিনটি চ্যালেঞ্জ। প্রায় শূন্য থেকে শুরু করা তিনটিই এএফসি বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট।  টুর্নামেন্ট তিনটি হলো অনূর্ধ্ব-১৬, ১৯ ও ২৩। কতদূর এগিয়েছে টুর্নামেন্ট তিনটির প্রস্তুতি। আদৌ কি প্রস্তুতি শুরু করতে পেরেছে বাফুফে?  নাকি দায়সারা টুর্নামেন্ট অংশ নিয়ে নিজের দায়িত্ব সেরে ফেলতে চায় দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি? তারাও কি হারিয়ে যাবে জাতীয় দলের মতো।
এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপ মাঠে গড়াবে জুলাইয়ে। একমাসও নেই হাতে। এ সময়ের মধ্যে কখন দল গঠন, কখনই বা প্রস্তুতি শুরু করবে বাফুফে? একমাসে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বয়সভিত্তিক প্রতিযোগিতার জন্য কতটুকু যথেষ্ট? ঘরোয়া ফুটবলের তরুণদের নিয়ে ট্রায়ালের মাধ্যমে দল গঠনের চেষ্ঠা করছেন নতুন কোচ। দলও নাকি তৈরি হয়েছে। আজকালের মধ্যে দলও ঘোষণা করা কথা। এই দল নিয়ে আজ বিকেএসপিতে প্রস্তুতি শুরু করবেন নতুন কোচ অ্যান্ড্রু ওর্ড। মাঝে ঈদের বন্ধ, সবকিছু মিলিয়ে বিশ দিনের বেশি সময় পাবেন না ওর্ড। অনূর্ধ্ব-২৩ ছাড়াও অন্য বয়সভিত্তিক দলগুলোও দেখবেন তিনি। সবচেয়ে কঠিন টুর্নামেন্ট হতে পারে এই টুর্নামেন্ট। পাইপলাইন শক্ত না থাকায় এই টুর্নামেন্ট থেকে ভালো কিছু আশা কঠিন। আর জাতীয় দলে তরুণ খেলোয়াড়ের অভাব। ঠিকমতো জাতীয় দলও গঠন করতে পারেনি বাফুফে। সবমিলে এই টুর্নামেন্টটি সবচেয়ে কঠিন হতে যাচ্ছে।
এএফসি’র অনূর্ধ্ব-২৩ টুর্নামেন্ট মাঠে গড়াচ্ছে জুলাইয়ে। বাংলাদেশ আছে ই গ্রুপে। একই গ্রুপে আছে প্যালেস্টাইন (আয়োজক), তাজিকিস্তান ও  জর্ডান। গ্রুপের তিন দলের র‌্যাঙ্কিং বাংলাদেশের উপরে। যদিও কোচ আশাবাদী। কিছু ভালো অভিজ্ঞ খেলোয়াড় মনে ধরেছে তার। এদিকে অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ আছে অক্টোবরে। বি গ্রুপে আছে বাংলাদেশ। একই  গ্রুপে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান, মালদ্বীপ এবং শ্রীলঙ্কার। তাজিকিস্তান এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করছে। টুর্নামেন্টটি শুরু হবে চলতি বছরের ৩১শে অক্টোবর থেকে। গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল পরের রাউন্ডে চলে যাবে। তুলনামূলক সহজ প্রতিপক্ষ পেলেও দল গঠন নিয়ে সমস্যায় আছে বাফুফে।
দীর্ঘ এক দশক  পর মাঠে গড়ানো যুব ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ শেষ হয়েছে সেই ৪ মে। কিন্তু এই দেড় মাসেও নেই যুবাদের কোনো হালনাগাদ। টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলারদের নিয়ে কখন, কি করা হবে তার নির্দিষ্ট কোনো কর্মপরিকল্পনাও নেই দেশের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার! এএফসি কাপের আসন্ন অনূর্ধ্ব-১৯ টুর্নামেন্টের জন্য সেরা খেলোয়াড় বাছাইয়ের অন্যতম সিঁড়ি এই যুব চ্যাম্পিয়নশিপ। টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলারদের যাছাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে দল গঠন করে এএফসি’র এই টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি নিতে হবে এই বাফুফেকে। কিন্তু সেই প্রস্তুতি শুরু করতে পারেনি বাফুফে। শুধু খেলোয়াড় বাছাই পর্যায়েই পড়ে আছে ফেডারেশন।
এদের প্রশিক্ষণের জন্য বিকেএসপিতে নেয়ার ব্যাপারে কোনো চেষ্টাও দেখা যাচ্ছে না। যদিও যুব টুর্নামেন্টের সময় বাফুফেরসহ সভাপতি বাদল রায় বলেছিলেন, সেই লক্ষ্যে এগুচ্ছি। দু’টি চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য দল গঠন করতে পারব।  যদিও খুব ভালো মানের উদীয়মান খেলোয়াড় খুঁজে পাইনি। অন্যদিকে অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের টুর্নামেন্ট শুরু হবে চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে। বাংলাদেশ আছে ই গ্রুপে। এই গ্রুপে বাংলাদেশ কাতার, ইয়েমেন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে মাঠে নামবে।
শক্তিশালী কাতার টুর্নামেন্টটির আয়োজন করছে। এখানেও গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন দল পরের রাউন্ডে যাবে। চলমান টুর্নামেন্ট পাইওনিয়ার ফুটবল লীগ থেকেই অনূর্ধ্ব-১৬ দলের জন্য খেলোয়াড় যাচাই-বাছাই করবে ফেডারেশন। লীগে এখন  সুপার লিগ চলছে। এখান থেকেই যাচাই বাছাই করে অনূর্ধ্ব-১৬ দল গড়ার কথা। কিন্তু তারও উদ্যেগ দেখা যাচ্ছে না। সবকিছু মিলিয়ে মনে হচ্ছে অতীতের মতোই নামকা ওয়াস্তে এসব টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এবং বরাবরের মতো হেরেই বিদায়। দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা না হলে বয়সভিত্তিক দলগুলো একই অবস্থায় চলে যাবে। এক সময় বয়সভিত্তিক দলগুলো আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে ভালো ফলাফল করতো।  তাদের নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা না করা হলে এদের অবস্থাও জাতীয় দলের মতো হলে অবাক হবার মতো কিছুই থাকবে না।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি