আজ রবিবার, ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : আগামী নির্বাচনেও শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসবে : নৌমন্ত্রী       ছায়েদুল হকের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক       শহীদ পুলিশ সদস্যদের প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-আইজিপির শ্রদ্ধা নিবেদন       বাবা-মায়ের পাশে শায়িত হবেন ছায়েদুল হক       জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা       রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা শাসকগোষ্ঠীর দমননীতির বহিঃপ্রকাশ       পঞ্চগড়ে বিজয় বাইসাইকেল র‌্যালি      
নবাবগঞ্জে একটি বাড়ি একটি খামার কার্যক্রম
দরিদ্র জনগোষ্ঠী এখনো পিছিয়ে
Published : Sunday, 13 August, 2017 at 7:08 PM, Count : 41
মো. সাদের হোসেন বুলু, নবাবগঞ্জ (ঢাকা) থেকে : অপার সম্ভাবনাময় বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে, প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন দারিদ্র্য, ক্ষুধা, বঞ্চনাহীন, দূর্নীতিমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নকে বাস্তবে রপদানের লক্ষ্যে তার ব্যক্তিগত মেধার বিকাশ ঘটিয়ে বিশেষ কিছু কার্যক্রম গ্রহণ করেন। যা ২০২১ অনুযায়ী দারিদ্র্য মুক্ত বাংলাদেশ গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে নেয়া কর্মসূচী গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে একটি বাড়ি একটি খামার, আশ্রয়ন প্রকল্প,  ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষা সহায়তা, নারীর ক্ষমতায়ন,ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, কমিউনিটি ক্লিনিক ও সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির মতো বেশ কিছু জণ হিতকর কার্যক্রম যা আধুনিক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে অপরিহার্য। খাদ্য, আশ্রয় ও শিক্ষার মতো  মৌলিক অধিকার গুলো রাষ্ট্র কর্তৃক বাস্তবায়নে  অতি সহায়ক প্রধানমন্ত্রীর এসব কার্যক্রম গুলো দেখভাল করার জন্য রয়েছেন সরকারী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন  ধাপের জনপ্রতিনিধি গণ।
প্রকল্পের ভিশনে নিজস্ব পূঁজি গঠন ও বিনিয়োগে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি ও জীবিকায়নের মাধ্যমে দারিদ্রতা নিরসন ও টেকসই উন্নয়নের কথা থাকলেও অতি দারিদ্র জনগোষ্ঠির লোকেরা অধিকাংশ ইউনিয়নে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের অধীনে গঠিত সমিতির  সদস্য নয়। তারা এ ব্যাপারে কিছু বলতে পারে না।
সরেজমিনে উপজেলার অঞ্চল ঘুরে দেখা যায়, এলাকার প্রভাবশালী ব্যাক্তি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী , ছেলে ও মেয়ে নিকট আত্বীয় স্বজন প্রবাসে আছেন, ব্যবসায়ী, সরকারী চাকুরী করে সন্তান, আর্থিকভাবে সচ্ছল কৃষক পরিবারের লোকজন সমিতি গুলোর অধিকাংশ সদস্য। অভিযোগ রয়েছে উপজেলার শোল্লা, যন্ত্রাইল ও কৈলাইল ইউনিয়নে  প্রকল্পের কর্মএলাকা ও গ্রাম র্নির্বাচন পদ্ধতি প্রকল্পের ভিশন অনুসারে  নির্বাচিত করা হয়নি। এসব ইউনিয়নে বেশ কয়েকটি গ্রামে অধিক সচ্ছল, প্রবাসী পরিবার ও ব্যবসায়াী শ্রেণীর জণসাধানরকে সমিতির সদস্য করা হয়েছে।  এবিষয়ে পাড়াগ্রামের বাসিন্দা  আছমা আক্তার বলেন,  হত দরিদ্র জনগণ গরু পায়নি। পেয়েছেন কাপড়ের ব্যবসায়ী, মুরগীর ব্যবসা করেন, মুদি দোকান করেন, প্রবাসে ছিলেন এমন শ্রেণীর জণগন। একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়কারী ইউসুফ আলী মী ফোনে বলেন, নবাবগঞ্জ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে ১৫৯টি সমিতি রয়েছে। যার সদস্য সংখ্যা প্রায় ৯ হাজার ঋন গ্রহিতার সংখ্যা প্রায় ৬ হাজারে উপরে। বর্তমানে ভিক্ষুকদের নিয়ে সমিতি গঠনের কাজ চলমান রয়েছে।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি