আজ শুক্রবার, ৩ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৮ আগস্ট ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : গাজীপুরে মাছ ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা       বার্সেলোনা হামলায় ১৮ দেশের নাগরিক হতাহত       ২০ আগস্ট পর্যন্ত হজ ভিসা আবেদনের সময় বৃদ্ধি       ‘বছর শেষের আগেই ক্ষমতা ছাড়বেন ট্রাম্প’       শ্রেণিকক্ষে স্বামীকে আটকে শিক্ষিকাকে গণধর্ষণ       ট্রাকের পেছনে মোটরসাইকেলের ধাক্কা : ৩ আরোহী নিহত       স্পেনে সন্ত্রাসীদের দ্বিতীয় হামলা ঠেকালো পুলিশ : নিহত ৫      
আলোচনা সভায় বক্তরা
জবাবদিহিতার অভাবে এখন যে যার মত কথা বলছেন
Published : Sunday, 13 August, 2017 at 8:30 PM, Count : 15
স্টাফ রিপোর্টার : গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ড. জাফরউল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দলীয়করণের কারণে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। আমরা সবাই হতাশায় ভুগছি। একটা স্বাধীন কমিশন গঠন করে এই সমস্যার কিছুটা সমাধান করা যেতে পারে। গতকাল শনিবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল বলেন, মানুষ তো গুম হয়নি, এখন আইনের শাসন গুম হয়েছে, গণতন্ত্রের গুম হয়েছে। আইনের বৈষম্যমূলক ব্যবহার হচ্ছে। ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য, নির্যাতনের জন্য, মুখ বন্ধের জন্য  সর্বোচ্চ ব্যক্তিরা আইনের অপপ্রয়োগ করছেন।
আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রেদওয়ানুল হক মূল প্রবন্ধ পাঠ  করেন। তিনি বলেন, গণতন্ত্র ছাড়া আইনের শাসন হবে না, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও তাদের ভূমিকা পালন করতে পারবে না। নির্যাতন, বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতারের কোনও আইনগত ভিত্তি নেই। দীর্ঘদিন যাবত মামলার তদন্ত হয় না, হলেও ধীর গতি, মাইনরিটিদের নিরাপত্তার কোনও ব্যবস্থা নেই। বর্তমানে ঘরের ভেতর আলোচনা করলেও অনুমতি নিতে হয়, ৫৭ ধারার মতো আইনের বৈষম্যমূলক ব্যবহার হচ্ছে। এসব কারণে আইনের শাসন ব্যাহত হচ্ছে। দেশে জবাবদিহিতার অভাব রয়েছে। রাজনৈতিক কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যবহার যতদিন বন্ধ না হবে, ততদিন আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হবে না।  যে যার মতো কথা বলবেন।
সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী বলেন, সম্প্রতি ঢাকা শহরে যেমন চিকুনগুনিয়া নামক রোগের প্রকোপ বেড়েছে, ঠিক তেমনি পুরো বাংলাদেশ যেন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত। আপিল বিভাগ যে রায় দিয়েছেন, তাতে কেউ সংক্ষুব্ধ হলে রিভিউ করতে পারেন। কিন্তু সব পক্ষ যেভাবে এ রায়ের পিছু লেগেছে,  তাদের সঙ্গে সঙ্গে একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি ক্ষমার অযোগ্য কাজ করেছেন। তার নিজের কর্মকা  নিয়ে প্রশ্ন আছে। সুব্রত চৌধুরী আরও বলেন, এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে বিচার বিভাগের প্রতি মানুষের অনাস্থা তৈরি হতে পারে। এই একটা জায়গাই আছে। এটা নষ্ট করবেন না। আমাদের মৌলিক অধিকার নিচে নেমে যাচ্ছে, সেটা নিয়ে আপিল বিভাগ পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন। আগামীকাল সাত খুন হত্যা মামলায় হাইকোর্টের রায়। এটাও তো হতো না। এই ঘটনায় জড়িতদের স্ব স্ব বাহিনীতে ফেরত পাঠানো হয়েছিল। হাইকোর্টে মামলা করে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের ব্যবস্থা করতে হলো।






« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি