আজ বৃহস্পতিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : মীরসরাইয়ের উপকূলে আগত অতিথি পাখির নিরাপত্তা জরুরী       হাইড্রোলিক হর্ন উৎপাদন বন্ধের নির্দেশ       বিদেশি লিগের ছাড়পত্র পেলেন না 'কাটার মাস্টার'       সু চির খেতাব প্রত্যাহার করল ডাবলিন সিটি কাউন্সিল       শাকিবের পরেই মোশাররফ করিম       আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের তিন মামলায় জামিন       আজ বার্ষিক সংবাদ সম্মেলন করবেন পুতিন      
সর্বসম্মত হলো না প্রস্তাব
চীনের সাথে বোঝাপড়া দরকার
Published : Thursday, 7 December, 2017 at 6:56 PM, Count : 326
বাংলাদেশ ও সৌদিআরবের আনা মিয়ানমারে মানবাধিকার সুরক্ষা সংক্রান্ত প্রস্তাব চীনের বাধার কারণে সর্বসম্মতভাবে পাশ হলো না। মঙ্গলবার জেনেভায় কাউন্সিলের ২৭তম সভায় প্রস্তাবটি ৩৩-৩ ভোটে পাস হয়েছে। এই প্রস্তাবে মিয়ানমার সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর মানবিক ও মানবাধিকার সুরক্ষা নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে। এটি কোন রাজনৈতিক বা অর্থনেতিক অবরোধের প্রস্তাব ছিল না। এটি একটা মানবিক প্রস্তাব ছিল, যা সর্বসম্মতভাবে পাস হওয়া উচিত ছিল। তারপরও প্রস্তাবটা পাস হওয়া ইতিবাচক, এটা মিয়ানমারের উপর মনস্তাত্ত্বিক চাপ সৃষ্টি করবে। শুধুমাত্র চীনের বিরোধের কারণে প্রস্তাবটা সর্বসম্মত হলো না। মিয়ানমার প্রশ্নে চীনের ভূমিকা ন্যাক্কারজনক। এ ব্যাপারে চীনের সাথে বোঝাপড়া করা উচিত এবং সেটা মুসলিম বিশ্বকে সাথে নিয়ে। চীন যদি এই বার্তা পায় যে মিয়ানমার প্রশ্নে তাদের ভূমিকা মুসলিম বিশ্বে তাদের ব্যবসা বাণিজ্য ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তাহলে চীন নিবৃত হবে। তার আগে নয়।
গণচীনে ক্ষমতায় আছে কমিউনিস্ট পার্টি। ১৯৪৮ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা চীনা কমিউনিস্ট পার্টি এক সময় বিশ্বের নিপীড়িত মানুষের মুক্তির প্রেরণা ছিল। তবে চীনা জাতিগতভাবে প্রচ  স্বার্থপর। তারা তাদের স্বার্থে নিপীড়িত মানুষের বিপক্ষে দাঁড়াতে মোটেই দ্বিধা করে না। ১৯৭১ সালে চীন শুধুমাত্র তাদের কৌশলগত স্বার্থে পাকিস্তানের গণবিরোধী সামরিক শাসকদের পক্ষ নিয়েছিল। পাকিস্তানি বাহিনী বাংলাদেশে যে বর্বরতা চালিয়েছে তা চোখে না দেখে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়েছিল। সাড়ে ৪ দশক পর মিয়ানমারের রোহিঙ্গা প্রশ্নে সেই চীন একই ভূমিকা নিয়েছে। তারা দ্বি-পাক্ষিক সমাধানের পথ দেখিয়ে বাংলাদেশকে কূটনৈতিক ফাঁদে ফেলেছে। মিয়ানমারের প্রাকৃতিক সম্পদ এবং ব্যবসায়িক স্বার্থে চীন এটা করছে। বাংলাদেশকে এখন পাল্টা কূটনীতি নিতে হবে। মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের ৩৩টি মুসলিম দেশে চীনের অর্থনৈতিক স্বার্থ কম নয়। যদি এসব দেশ এক এক করে চীনের সাথে চুক্তি বাতিল করে তাহলে চীন পথে আসতে বাধ্য হবে।
বিশ্বে হাজার হাজার বছর ধরে অনেক মানবিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে, তার সমাধানও হয়েছে। ইহুদি শরণার্থী সংকট কখনো মিটবে এমন ধারণা ছিল না। রোহিঙ্গা সংকট ও সমাধান হবে। তবে এ ব্যাপারে চীন ও ভারতের ভূমিকার কথা বাংলাদেশের জনগণের মনে থাকবে।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি