আজ মঙ্গলবার, ৩ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : সরকারের আশ্বাসে অনশন ‌ভাঙলেন স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী শিক্ষকরা       প্রণব মুখার্জিকে ডি-লিট ডিগ্রি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের       একনেকে ১৮৪৮৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৪ প্রকল্প অনুমোদন       ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল       সিদ্ধান্তে অটল শাকিব খান, সমঝোতা চান অপু বিশ্বাস       চাঁদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩        আজ আ.লীগের মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা      
৫ যুদ্ধাপরাধীর রায়ে রাজনগরে বিভিন্ন মহলের সন্তোষ প্রকাশ
Published : Wednesday, 10 January, 2018 at 4:24 PM, Update: 10.01.2018 4:26:33 PM, Count : 455
৫ যুদ্ধাপরাধীর রায়ে রাজনগরে বিভিন্ন মহলের সন্তোষ প্রকাশরাজনগর (মৌলভীবাজার)  সংবাদদাতা :  মৌলভীবাজারের রাজনগরে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, গণহত্যা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটে জড়িত থাকার ৫টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রাজনগর উপজেলার ৫ যুদ্ধাপরাধীর রায় ঘোষণা করা হয়েছে। রায়ে ২ জনকে মৃত্যুদ- ও ৩ জনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড রায় দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল। রায় ঘোষণার পর মুক্তিযোদ্ধা, স্থানীয় সাধারণ মানুষ ও ভূক্তভোগী শহীদ পরিবারগুলো সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তবে, ভূক্তভোগী পরিবার নিজেদের নিরাপত্তা দাবী করেছেন এবং রায় দ্রুত কার্যকর করে রাজনগরবাসীকে কলঙ্কমুক্ত করার দাবী জানিয়েছেন তারা।

বুধবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল রাজনগর উপজেলার জামুরা গ্রামের মৃত ফরজান আলীর ছেলে নেছার আলী (৭৫) ও গয়াসপুর গ্রামের মৃত আব্দুন নূর চৌধুরীরর ছেলে ওজায়ের আহমদ চৌধুরীকে মৃত্যুদ-াদেশ দেন। অপর আসামী বাগাজুরা গ্রামের মৃত আত্তর মিয়া তরফদারের ছেলে সামছুল হোসেন তরফদার ওরফে আশরাফ (৬৫), সোনাটিকি গ্রামের মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে মৌলভী ইউনুছ আহমদ (৭১) ও উত্তর নন্দীউড়া গ্রামের মৃত আলকাছ মিয়ার ছেলে মোবারক মিয়াকে (৬৬) আমৃত্যু কারাদ- দেয়া হয়েছে।

আসামীদের মধ্যে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত ওজায়ের আহমদ চৌধুরী মৌলভীবাজার শহরের চৌমুহনা ও আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত মৌলভী ইউনুছ আহমদকে সোনাটিকি গ্রামের তার নিজ বাড়ি থেকে ২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর আদালতের পরওয়ানার ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করেছিল রাজনগর থানা পুলিশ। অন্যান্যদের মধ্যে সামছুল হোসেন তরফদার, নেছার আলী ও মোবারক মিয়া বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।
এদিকে তাদের বিরোদ্ধে শাস্তির রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে স্থানীয় শহীদ ও ভূক্তভোগী পরিবারগুলো। ১৯৭১ সালের ২৯ নভেম্বর খলাগ্রামের ধর বাড়িতে এই রাজাকারদের সহযোগিতায় পাকবাহিনী গণহত্যা চালায়। স্বাধীনতার ৪৬ বছর পরও বুলেটের ক্ষত রয়েছে দেয়ালের গায়ে। সেই দাগ দেখিয়ে খলাগ্রামের নিহত শতদল ধর চৌধুরীর ছেলে মামলার সাক্ষী শান্তিপদ ধর চৌধুরী রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, দীর্ঘদিন পর হত্যাকারীরা শাস্তি পাবে। এতে আমরা খুশি হয়েছি। রায় দ্রুত কার্যকর করা হলে আমার পিতাসহ অন্যান্য শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে। শহীদ পরিবারের লোকজন জানান, আসামী পক্ষের লোকজন প্রভাবশালী হওয়া এবং যুদ্ধাপরাধের মামলা শুরুর পর থেকে তাদের পরিবারগুলো নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। তারা নিজেদের নিরাপত্তার দাবী জানিয়েছেন।
এব্যাপারে রাজনগর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা আমীর আলী বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও যুদ্ধাপরাধের বিচারের মাধ্যমে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়ায় রাজনগরের মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ পরিবারগুলো সন্তুষ্ট। রায় কার্যকর করে রাজনগরকে কলঙ্কমুক্ত করার দাবী আমাদের।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি