আজ শনিবার, ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : বিশাল ব্যবধানে শ্রীলঙ্কাকে হারাল টিম টাইগার       শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী নিখোঁজ       তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন       রক্ত পরীক্ষায় খুব সহজেই ক্যান্সার শনাক্ত!       দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন অর্থমন্ত্রী, আহত ৩০       না.গঞ্জে নিখোঁজের ১২ দিন পর মাদ্রাসার ছাত্রীর লাশ উদ্ধার       সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা      
রাঙ্গুনিয়ায় পাহাড়ি সুরঙ্গপথ সৃষ্টি করেছে দুই এলাকার সেতুবন্ধন
Published : Friday, 12 January, 2018 at 6:54 PM, Count : 330
রাঙ্গুনিয়ায় পাহাড়ি সুরঙ্গপথ সৃষ্টি করেছে দুই এলাকার সেতুবন্ধনরাঙ্গুনিয়া (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা : রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পোমরা ইউনিয়নের পশ্চিম পোমরা এলাকায় পাহাড়ের ভিতর দিয়ে একটি সুরঙ্গ পথ সৃষ্টি করেছে দুই এলাকার মানুষের মাঝে সেতুবন্ধন। এই সুরঙ্গপথে কমসময়ে দুই এলাকার মানুষ আসাযাওয়া করেন।
পশ্চিম পোমরা নবাবীপাড়া ও বড়ঘোনা এলাকার পাহাড়ি পথে প্রাকৃতিকভাবে এই সুরঙ্গপথের সৃষ্টি আদিকাল থেকেই। দুই পাহাড়ের চিপার ভিতর দিয়ে সৃষ্ট এই সুরঙ্গপথের দৈর্ঘ্য প্রায় আধা কিলোমিটার। পথটি খুবই সরু আঁকা-বাঁকা আনুমানিক দেড় ফুট কোথাও এক ফুট কিংবা কোথাও এরচাইতেও কম প্রসস্ত। এই সরুপথে সুদীর্ঘকাল ধরে যাতায়াত করেন ৪ গ্রামের কয়েকহাজার মানুষ। যেখানে একদিক থেকে কেউ আসলে অপর দিকে যাওয়া যায় না। তাই যাওয়ার সময় এলাকার মানুষ মুখে শব্দ করে চলাচল করেন। এই পথে শুধু মানুষ নয়, চলাচল করে গৃহপালিত গরু-ছাগল। যাওয়া আসার পথে পাহাড়ের দুই পাশে চোখে পড়ে বিভিন্ন বিলুপ্ত প্রজাতীর উদ্ভিদ। রাঙ্গুনিয়া উপজেলার প্রাকৃতিক সুন্দর্যমন্ডিত পাহাড়-সমতল, তার মাঝে এই সুরঙ্গ। সব মিলিয়ে পর্যটন সম্ভাবনাময়ী বৈচিত্রময় এই সুরুঙ্গটি হতে পারে পর্যটকদের জন্য আকর্ষনীয় দর্শনীয় স্থান।
সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার প্রবেশদ্বার তাপবিদ্যুৎ থেকে এককিলোমিটার পূর্বদিকে এলে সত্যপীর মাজারের বিপরীতে সড়কপথে কিছুদূর এগুলোই বড়ঘোনা গ্রাম। গ্রামের পূর্বপাশে সারিসারি পাহাড়। পাহাড়ের পাদদেশে রয়েছে পশ্চিম পোমরার নবাবীপাড়া গ্রাম। এই গ্রামের সাথে বড়ঘোনা এলাকার মানুষের সড়ক পথে যাতায়াত করতে হলে সত্যপীর মাজার এলাকা থেকে আরো আধাকিলোমিটার পূর্বদিকে গিয়ে বুড়ির দোকান হয়ে আসতে হবে। রাঙ্গুনিয়া উপজেলার অর্থ্যাৎ দুই এলাকার মানুষের সড়ক পথে যাতায়াতে দুরত্ব সবমিলিয়ে দীর্ঘ ৩কিলোমিটার। অথচ চাষাবাদসহ জীবনযাপনের সার্বিক সবকিছু একগ্রামের সাথে অপর গ্রামের মানুষের জীবনযাত্রার সাথে উতপ্রোতভাবে জড়িত। তাই দীর্ঘপথের সমস্যা সমাধানে স্থানীয় এলাকাবাসী আবিষ্কার করেন একটি সুরঙ্গপথের।
রাঙ্গুনিয়া উপজেলার স্থানীয়দের ভাষায় সুরঙ্গঢালা নামে বেশ পরিচিত। নিরব-নিস্তব্দ গা ছম ছমে পরিবেশ। ভিতরের দিকে এগুলোই উপরের খোলা আকাশ সংকুচিত হয়ে দেখা যায়। দুই পাহাড়ের ছিপার ভিতর দিয়ে আঁকা-বাঁকা এই পথে নতুন কেউ গেলে ভয়ে শরীর ছম ছম করবে। দারুণ দর্শনীয় এই সুরঙ্গপথের বাইরে এলে দেখা মিলবে প্রাকৃতিক বিলুপ্ত প্রায় বিভিন্ন উদ্ভিদের। এরমধ্যে বৃষ্টির দিনে রাখাল ও নৌকার মাঝিদের ব্যবহার্য ঝুঁইড় (ছাতার বিকল্প হিসেবে খোলস আকৃতির বাঁশ বেত আর পাতা দিয়ে (তৈরিকৃত) তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় ঝুঁইড় পাতা, ঔষধি গুণাগুণ সমৃদ্ধ গুন্ডই পাতা গাছ, তারা পাতা গাছ, খেয়াজার গাছ উল্লেখযোগ্য। দুই পাহাড়ের মাঝ বরাবর এই সুরঙ্গ ছাড়াও পাহাড়ের সাথে সমতলের মিতালী সবমিলিয়ে নৈসর্গিক এক ভুবন এই সুরঙ্গঢালা এলাকা।
এই সুরঙ্গপথে বড়ঘোনা এলাকার মানুষ নবাবীপাড়া এবং নবাবীপাড়া এলাকার মানুষ বড়ঘোনা এলাকায় নিয়মিত আসাযাওয়া করে কৃষি কাজ সহ নিজেদের বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কাজের সেতুবন্ধন সৃষ্টি করেছে।
বড়ঘোনা এলাকার কৃষক কালাম মিয়া বলেন, ‘নবাবীপাড়ায় আমার কৃষি জমি রয়েছে। এই সুরঙ্গপথে আসাযাওয়া করে দীর্ঘদিন ধরে আমরা তা চাষাবাদ করি।’ সুরঙ্গ দেখতে আসা মুহাম্মদ আলী ও মোহাম্মদ ইলিয়াছ নামে দুই দর্শনার্থী বলেন, ‘পোমরার ভেতর দিয়ে প্রাকৃতিক এই সুরঙ্গ পথ যে কত চমৎকার হতে পারে তা এখানে না আসলে বুঝা যাবে না। পাহাড়ের সাথে এলাকার সুন্দর্যকে কাজে লাগিয়ে সুরঙ্গকেন্দ্রিক একটি পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুললে অনেক ভাল ভাল পর্যটন কেন্দ্রও এটার কাছে হার মানবে।’




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি