আজ শনিবার, ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২০ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : বিশাল ব্যবধানে শ্রীলঙ্কাকে হারাল টিম টাইগার       শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী নিখোঁজ       তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন       রক্ত পরীক্ষায় খুব সহজেই ক্যান্সার শনাক্ত!       দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন অর্থমন্ত্রী, আহত ৩০       না.গঞ্জে নিখোঁজের ১২ দিন পর মাদ্রাসার ছাত্রীর লাশ উদ্ধার       সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা      
রাঙ্গামাটির পাহাড়ে বাড়ছে কমলার চাষ
Published : Saturday, 13 January, 2018 at 8:28 PM, Count : 68
রাঙ্গামাটির পাহাড়ে বাড়ছে কমলার চাষ ভোরের ডাক ডেস্ক : এবারও রাঙামাটির পাহাড়ে রসালো কমলার ব্যাপক ফলন হয়েছে। উৎপাদিত এসব কমলা স্বাদে মিষ্টি। পাহাড়ে এসব রসালো কমালার চাষ দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।
প্রতি বছরের মতো এ বছর জেলার বিভিন্ন স্থানে কমলার চাষ হয়েছে। ফলনও হয়েছে ভালো। এখন পাহড়ে সবুজ পাতার ফাঁকে ফাঁকে ঝুলছে ফিকে হলুদ রঙের কমলা। রাঙামাটি জেলায় সাধারণত দুটি প্রজাতির কমলার চাষ হয়ে থাকে। একটি হলো সাজেক অন্যটি খাঁশিয়া।
রাঙামাটি জেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটির জেলার বাঘাইছড়ি, বিলাইছড়ি, নানিয়ারচর উপজেলা ও সদর এ ৪টি উপজেলায় এসব কমলার চাষ করা হয়েছে। পাহাড়ের পাদদেশে ঢালু জায়গায় প্রতিটি টিলায় রসালো আর মিষ্টি কমলার বাগান গড়ে তুলেছে চাষিরা। পাহাড়ের এক একটি টিলায় ২০০ থেকে ৩০০ কমলার গাছ রয়েছে। এসব বাগানে এ বছর কমলার ফলন হয়েছে খুব ভালো। তবে এখনও ভালোভাবে পাকেনি। আবার কোনো কোনো বাগানে কমলায় রঙ ধরেছে। এসব উৎপাদিত কমলায় বর্তমানে বিভিন্ন হাট-বাজার সয়লাব।
এছাড়া দামও কম হওয়ায় এর চাহিদা প্রচুর। এ বছর রাঙামাটি জেলায় ব্যাপক কমলার চাষ হয়েছে। এর মধ্যে রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার উৎপাদিত কমলা এখন বাজারের শীর্ষস্থান দখল করেছে। এসব মিষ্টি ও টসটসে রসালো কমলা পাহাড় ছেড়ে রফতানি হচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। ফলে স্থানীয় হাট-বাজারে প্রতি ডজন কমলা বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা থেকে মাত্র ৬০ টাকায়। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় পার্বত্য তিন জেলায় ব্যাপক হারে কমলার বাগান গড়ে ওঠে। এবারের মৌসুমে পাহাড়ে কমলার উৎপাদন বেশি হওয়ায় দাম সহনীয়। তবে উন্নত জাতের কমলার ডজন ১০০ টাকাও বিক্রি হচ্ছে। সংশ্লিষ্টরা জানান, কয়েক বছর আগেও পার্বত্য অঞ্চলে কমলা আমদানি করা হতো রাজশাহী, সিলেটসহ দেশের অন্য অঞ্চল থেকে। আর এখন পাহাড়ের কমলা বাজারজাত হয়ে যাচ্ছে পার্বত্য জেলার বাইরে। উৎপাদন বেশি, তাই স্থানীয় বাজারে কমলার দাম সহনীয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ফলন ভালো দেখে বর্তমানে পার্বত্য অঞ্চলে অনেকে কমলা চাষে ঝুঁকছেন। এরই মধ্যে তিন পার্বত্য জেলায় কমলার চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। পাহাড়ে সরকারিভাবেও কমলা চাষ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্রকল্পে পার্বত্য তিনটি জেলায় মিশ্রফসল চাষের মাধ্যমে চাষিদের সহায়তা দিচ্ছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড। প্রকল্পটির সফল বাস্তবায়ন হয়েছে বলে জানিয়েছে, বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ। সবচেয়ে বেশি কমলার চাষাবাদ হচ্ছে রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকে।
রাঙ্গামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ছাড়াও পার্বত্য তিন জেলাসহ দেশের ১০ জেলায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি কমলা চাষ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। দেশে কমলা চাষের প্রচুর সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পাহাড়ি এলাকার এসব জেলার ৪০ উপজেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছে। জিওবি ফান্ডের অর্থায়নে ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে সরকারের কৃষি বিভাগ কমলা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে। ২০০৬-০৭ অর্থবছর শুরু করা পাঁচ বছর মেয়াদের প্রকল্পটি শেষ হয় ২০১২ সালে। প্রকল্পে আশানুরূপ সাফল্য পাওয়া গেছে। বর্তমানে রাঙ্গামাটিসহ তিন পার্বত্য জেলায় ব্যক্তি উদ্যোগে নিজস্ব জায়গায় প্রচুর কমলার চাষ হচ্ছে। ফলন পাওয়া যাচ্ছে ভালো।



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি