আজ বুধবার, ৪ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : ৬ মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচন দেয়ার নির্দেশ       ডিএনসিসির উপ-নির্বাচন স্থগিত       কলম্বিয়ায় সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : নিহত ১০       রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তির বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের গভীর উদ্বেগ       উত্তরা মেডিকেলের ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা নেই       না.গঞ্জে ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত দুই       শাহজালালে ৩১৮ কার্টন সিগারেট জব্দসহ আটক ২      
ফের জঙ্গি বিরোধী অভিযান
একেবারে নির্মূল কাম্য
Published : Sunday, 14 January, 2018 at 6:29 PM, Count : 23
দেশে যখন জঙ্গি তৎপরতা নেই। আলোচনায়ও ফিকে হয়ে এসেছে জঙ্গি তৎপরতা। তখন শুক্রবার আকস্মিকভাবে রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ায় রুবি ভিলায় র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব) অভিযান পরিচালনা করে। যাতে ৩ জঙ্গি নিহত হয়েছে। জানা গেছে, এক সপ্তাহ আগে ভুয়া আইডি কার্ড জমা দিয়ে জঙ্গিরা বাসাটি ভাড়া নিয়েছিল। অভিযানকালে চুলার উপর গ্রেনেড রেখে বিস্ফোরণের চেষ্টা চালায় জঙ্গিরা। রাত ২টার দিকে আকস্মিকভাবে র‌্যাব বাড়িটি ঘিরে ফেলে। ভবনের অন্যান্য বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে র‌্যাব অভিযান শুরু করে। পরে ভবনের ভেতর থেকে ৩ জঙ্গির লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সকলেই নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র সদস্য বলে র‌্যাব জানিয়েছে। এই ঘটনার মধ্যদিয়ে এটা প্রমাণিত হল যে দেশে জঙ্গিদের তৎপরতা এখনো আছে। তবে এই তৎপরতারপূর্ণ নির্মূলই কাম্য।
২০০৪ সালে একযোগে দেশের ৬৩ জেলার আদালতে বোমা হামলা চালিয়ে ভয়ঙ্কর জঙ্গি সংগঠন জেএমবি তাদের অস্তিত্ব জানান দেয়। উত্তরবঙ্গের ভয়ঙ্কর জঙ্গি নেতা বাংলাভাই এবং জেএমবি’র তৎকালীন প্রধান আবদুর রহমান নিহত হওয়ার পর প্রথম পর্যায়ের জঙ্গি কার্যক্রম স্তিমিত হয়ে পড়ে। কিন্তু তারা নির্মূল হয় না। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ইসলামী স্টেটস বা আইএসের উত্থানের সাথে সাথে বাংলাদেশে নতুন করে জেএমবি চাঙ্গা হয়ে ওঠে। ২০১৬ সালে জঙ্গি তৎপরতা চরমে ওঠে। বিদেশি নাগরিক, জাযক, পুরহিত, শ্রমণ সংখ্যালঘু কেউ তাদের গুপ্ত হত্যা থেকে রেহাই পায় না। একটা পর্যায়ে বাঙালির অসাম্প্রদায়িক মডারেট ইমেজ নিয়ে টানা টানি শুরু হয়। কিন্তু আমার কথা হচ্ছে সরকারের নেয়া নানামুখি পদক্ষেপের কারণে সেনাবাহিনী থেকে চাকরিচ্যুত মেজর জিয়া ছাড়া শীর্ষ সব জঙ্গি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে নিহত হলে পরিস্থিতির উন্নতি হয়। ২০১৭ সাল বড় ধরনের জঙ্গি তৎপরতামুক্ত ছিল দেশ। মানুষ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করেছিল কিন্তু মাঝেমধ্যে জঙ্গি বিরোধী অভিযান এটা জানান দিয়েছে যে জঙ্গি তৎপরতা শেষ হয়ে যায়নি।
বাংলাদেশে জঙ্গি তৎপরতা সম্পূর্ণ নির্মূল প্রায় অসম্ভব বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে সেই লক্ষে অভিযান পরিচালনা অব্যাহত রাখলে পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। বুবিহাউসে নকল আইডি ব্যবহার করে বাসা ভাড়া নেয়া হয়েছিল। একটা বিষয় করা যেতে পারে যে এখন থেকে বাসা ভাড়া নেয়ার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট থানার মাধ্যমে আইডি কার্ড যাচাই হওয়ার পরই বাসা ভাড়া দেয়া হবে এরকম নিয়ম চালু করা যেতে পারে। শুরু হয়ে গেছে ২০১৮ সাল, নির্বাচনের বছর এসময় নতুন করে জঙ্গি উত্থানের বিষয়টা উড়িয়ে দেয়া যায় না। সুতরাং এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো সতর্ক হতে হবে।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি