আজ রবিবার, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান হেদায়েত উল্লাহ       কোটা পদ্ধতির সংস্কার দাবিতে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা       নবীগঞ্জে অজ্ঞাত কিশোরীর লাশ উদ্ধার       মণিরামপুরে ৪ দিন ধরে শিশু শ্রমিক নিখোঁজ       দুই সিটির উপ-নির্বাচন স্থগিত, রুল নিষ্পত্তির নির্দেশ       জিয়া চ্যারিটেবল মামলার শুনানি কাল পর্যন্ত মুলতবি       স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ আহত ২০      
চন্দ্রগঞ্জ পান বাজারে উত্তাপ, খিলি ১০ টাকা
Published : Wednesday, 14 February, 2018 at 5:43 PM, Count : 188
চন্দ্রগঞ্জ পান বাজারে উত্তাপ, খিলি ১০ টাকাচন্দ্রগঞ্জ (লক্ষীপুর) সংবাদদাতা : পানের জেলা লক্ষীপুরে হঠাৎ করেই পানের দাম বেড়ে গেছে। আকস্মিকভাবে বাজার চড়ে যাওয়ায় পানের খিলির দামও বেড়ে গেছে। ১০দিন আগে যে বড় পান পুরোটাই খিলি বিক্রি হতো ৫টাকা কিন্তু সেখানে এখন বড় একটি পানকে দুই ভাগ করে ৫টাকা করে খিলি বিক্রি হচ্ছে। বিক্রেতারা পুরো একটি বড় পানের খিলি বিক্রি করছেন ১০ টাকা দরে।

জেলার অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি থানা চন্দ্রগঞ্জ, সেই চন্দ্রগঞ্জে আড়তদারেরা বলছেন, শীতের কারণে বরজে পান উৎপাদন কমে যাওয়ায় বাজারে এ অবস্থা তৈরি হয়েছে। বাজারে পান ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এলাকার বাজারে  প্রতি বিড়া (৭২টি পান) বিক্রি হয় ৩০০ টাকায়। অন্যদিকে প্রতি বিড়া ছোট পান বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা দরে। কিন্তু গত ১০ দিন আগে বিড়া ছিল ৮০-৯০ টাকা।

চন্দ্রগঞ্জ থানার মান্দারী এলাকার খিলি পান বিক্রেতা রাসেল বলেন, শীতের সময় প্রতি বছরই পানের দাম বাড়ে। তবে এবার বাজার অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে।

কমলনগরের পানের খুচরা বিক্রেতা শাহাজান বলেন, দুই দিন আগে তিনি প্রতি বিড়া পান কিনেছেন ৮০ থেকে ৯০ টাকায়। এখন মাঝারি আকারের সেই পান প্রতি বিড়া ২০০ টাকায় কিনতে হচ্ছে। বড় আকারের প্রতি বিড়া পান কিনতে হচ্ছে ৩০০ টাকা দরে। এতে ছোট একটি পানের দাম পড়ছে পৌনে তিন টাকা, বড় পানের দাম পড়ছে ৪ টাকার বেশি। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন, বরজে নতুন পান উৎপাদন শুরু না হওয়া পর্যন্ত আরও এক মাস এ অবস্থা চলবে।

লক্ষীপুর জেলা কৃষি কর্মকর্তা আবুল হোসেন, বলেন শীত আর কুয়াশার কারণে পানের বরজে গাছ মরেও যাচ্ছে। ফলে বাজারে পানের সরবরাহ কমে গেছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, চলতি বছর লক্ষীপুর, চন্দ্রগঞ্জ, রায়পুর, রামগঞ্জ, কমলনগর ও রামগতি উপজেলায় ৫০০ হেক্টর জমিতে পানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে শুধু চন্দ্রগঞ্জ উপজেলায় চাষ হয়েছে প্রায় ১০০ হেক্টর জমিতে। লক্ষীপুরের সবচেয়ে বড় পান-বাজার বসে হায়দরগঞ্জ ও মান্দারী এলাকায়।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নুরুল মমিন জানান, বর্ষা মৌসুমে পানের উৎপাদন বেশি হওয়ায় বাজারে দাম কম থাকে। আর শীতে ফলন কম হওয়ায় দাম চড়া থাকে।


« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি