আজ রবিবার, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
ই-পেপার ভিডিও ছবি বিজ্ঞাপন লাইভ টিভি লাইভ রেডিও সকল পত্রিকা যোগাযোগ
শিরোনাম : জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান হেদায়েত উল্লাহ       কোটা পদ্ধতির সংস্কার দাবিতে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা       নবীগঞ্জে অজ্ঞাত কিশোরীর লাশ উদ্ধার       মণিরামপুরে ৪ দিন ধরে শিশু শ্রমিক নিখোঁজ       দুই সিটির উপ-নির্বাচন স্থগিত, রুল নিষ্পত্তির নির্দেশ       জিয়া চ্যারিটেবল মামলার শুনানি কাল পর্যন্ত মুলতবি       স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ আহত ২০      
সাফল্য প্রত্যাশী মাহমুদউল্লাহ
বাংলাদেশ-শ্রীলংকা টি-২০ সিরিজ  শুরু হচ্ছে আজ
Published : Thursday, 15 February, 2018 at 8:55 PM, Count : 75
স্পোর্টস রিপোর্টার : গেল তিন বছর ওয়ানডেতে বাংলাদেশ ক্রিকেটের জয় এসেছে অহরহ। সেটা হোক দেশে কিংবা দেশের বাইরে। টেস্ট ক্রিকেটেও সম্প্রতি জয়ের অভ্যাসটা লাল-সবুজের দল করে ফেলেছে। আগে যেখানে ইনিংস পরাজয় ঠেকানোই ছিল দলের মূল লক্ষ্য এখন সেখানে লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ন্যূনতম ড্র। কিন্তু ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের সামর্থ্য এখনও প্রশ্নবিদ্ধ। ২০০৬ থেকে এখন পর্যন্ত ৬৯টি ম্যাচ খেলে জয় ঘরে তুলেছে ২১টিতে। বাকি ৪৬টিতেই ছিল হারের গ্লানি। জয় যেন এই ফরমেটে সোনার হরিণ। তবে আশার কথা হলো, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দিয়েই সেই প্রশ্নবোধক চিহ্ন মুছে দিতে চাইছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আর এই ক্ষেত্রে ভীতিহীন ক্রিকেটের বিকল্প দেখছেন না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি আমরা টি-টোয়েন্টিতে আমাদের ভীতিহীন ক্রিকেট খেলা উচিত। ভীতিহীন ক্রিকেটটা আপনি যদি ব্যর্থতা দিয়ে চিন্তা করেন, তাহলে এই ফরমেটে সফলতার পরিমাণ কমে যাবে। তো ব্যর্থতা ও ভীতির ব্যাপারটি যদি কমে যায় তাহলে টি-টোয়েন্টিতে ভালো করা সম্ভব। আমার যেটা মনে হয় আমাদের টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের উপর একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন আছে। এই সিরিজে একটা স্টেটমেন্ট দেয়ার আছে বাকি বিশ্বকে। এই সিরিজটা খুব গুরুত্বপূর্ণ আমাদের জন্য, আমাদের ক্রিকেটের জন্য। আমরা নিজেদের করে নিতে চাই। আঙুলের চোট সারেনি সাকিব আল হাসানের। টেস্ট সিরিজের মতো টি- টোয়েন্টিতেও তাকে ছাড়াই মাঠে নামতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। টেস্টের মতোই টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্বটাও করতে হচ্ছে মাহমুদউল্লাহকে। উপলক্ষটা স্মরণীয় করে রাখতে চান গতকাল আনুষ্ঠানিক ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এমন কোনো কিছু বললেন না ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক। বরং, তিনি সোজাসাপটা জানিয়ে দিলেন, এই সিরিজ অনেকটাই নিজেদের বদনাম মেটানোর লড়াই। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে যাচ্ছেতাইভাবে হারা, টেস্টে ঢাকায় সবকিছু হযবরল করে ফেলার পর বদনামই তো কেবল জুটছে বাংলাদেশের। তবে মাহমুদউল্লাহ এসবের ধারেকাছেও গেলেন না। তার মতে,  টি-টোয়েন্টি পুরোপুরি ভিন্ন ধরনের খেলা। এই খেলার গতিটাও ভিন্ন। তিনি বরং বলতে চাইলেন, ভালো টি-টোয়েন্টি দল নয় বলে বাংলাদেশের যে পরিচিতি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে সেই পরিচিতিটা অতীতের বিষয় বানাতে চান, আমাদের টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের ওপর যে প্রশ্নবোধক চিহ্নটা আছে, আমরা সেটা সরাতে চাই। একই সঙ্গে একটা বার্তাও দিয়ে রাখতে চান মাহমুদউল্লাহ, আমরা পৃথিবীর প্রতিটি দলকে একটা বার্তা দিয়ে রাখতে চাই যে টেস্ট ও ওয়ানডেতে আমরা যেভাবে এগোচ্ছিলাম. টি-টোয়েন্টিতেও আমরা সেভাবেই এগিয়েছি। ঘরের মাঠে সব সময়ই একটা প্রত্যাশার চাপ মাথায় নিয়ে খেলতে হয় বাংলাদেশকে। এই চাপটাই বারবার সমস্যা হয়ে দেখা দিচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে বেশ বাস্তবিক তিনি, আসলে এসব বলে লাভ নেই। তিন বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে ঘরের মাঠে ভালো খেলে, জিতে এই প্রত্যাশাটা আমরাই বাড়িয়েছি। সেই প্রত্যাশা অনুযায়ী আমরা এই সিরিজটা খেলতে পারিনি। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজেও চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজের লড়াইয়ে নামবে লাল-সবুজের দল। আজ সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে স্বাগতিকরা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায়। চোটের কারণে নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামতে পারছেন না। অন্যদিকে দলের সেরা খেলোয়াড় তামিম এবং মুশফিকও ইনজুরিতে। তাদের দুজনের মাঠে নামার ব্যাপারে সন্দিহান টিম ম্যানেজম্যান্ট। সাকিব দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারবেন কি না, সেটাও নিশ্চিত নয়। তাই টেস্টের পর টি-টোয়েন্টিতেও বাংলাদেশ দলেকে নেতৃত্ব দেবেন মাহমুদউল্লাহ। প্রথম টেস্ট অধিনায়কত্বে বাংলাদেশকে খুব একটা সাফল্য এনে দিতে না পারলেও টি-টোয়েন্টিতে দলের সাফল্যে দৃঢ় আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ বলেন, টি-টোয়েন্টি ভিন্ন ফরম্যাট। আমরা শেষ কয়েকটা সিরিজে ভালো খেলতে পারিনি। তাই এই সিরিজ আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। এই সিরিজ দিয়েই বার্তা দিতে চাই যে, ওয়ানডে ও টেস্টের মতো টি-টোয়েন্টিতেও আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা এই সিরিজ জিততে চাই।
এই সিরিজের বাংলাদেশ দলে ছয়জন নতুন মুখ জায়গা পেয়েছেন। দলে ডাক পাওয়া এই তরুণ ক্রিকেটারদের ওপর বেশ আস্থা বাংলাদেশ অধিনায়কের, আমাদের প্রথম একাদশে কারা খেলবেন, সেটা এখনো ঠিক হয়নি। অবশ্য নতুন যারা সুযোগ পেয়েছেন, তাদের ওপর আস্থা রাখতেই হচ্ছে। নিজেকে প্রমাণ করেই দলে সুযোগ পেয়েছেন তারা। আশা করছি, যারাই একাদশে সুযোগ পাবেন, নিজের সামর্থ্যের সেরাটা দিয়েই খেলবেন এবং ভালো কিছু করবেন বলেও আমার বিশ্বাস। আর সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি হবে সিলেটে আগামী রোববার। এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ হেরেছে ১-০ ব্যবধানে। অবশ্য চট্টগ্রামে প্রথম ম্যাচটি ড্র হয়েছিল। এবার টি-টোয়েন্টিতে কেমন করে, সেটাই এখন দেখার। রঙিন পোশাকে দুই ফরম্যাটে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স দুই ধরনের। ওয়ানডেতে দারুণ লড়াইয়ে নিজেদের সাম্প্রতিক বদলে যাওয়ার কথা জানান দিলেও টি-টোয়েন্টিতে টাইগারদের পারফরম্যান্স এখনও আশানুরূপ নয়। বাংলাদেশের সঙ্গে এই পর্যন্ত ৭টি টি-টোয়েন্টি খেলে ৫টিতেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে তারা। বাকি দুটি জয় বাংলাদেশের।
কিন্তু দিন শেষে শেরেবাংলার উইকেট নিয়ে কিন্তু ?ভাবতেই হচ্ছে। কেননা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের পর টেস্ট সিরিজেও উইকেট থেকে শতভাগ সুবিধা স্বাগতিকরা আদায় করে নিতে পারেনি। ফলে ক্ষতি যা হবার তা স্বাগতিকদের হয়েছে। টি-টোয়েন্টিতে কি হবে? উইকেট থেকে স্বাগতিকরা সুবিধা পাবে তো?  না, মাহমুদউল্লাহ এমন ভাবনার পথই মারাতে চাইছেন না। বরং যা হবার তাই হবে মনোভাব নিয়ে চাপমুক্ত থেকে পারফরম্যান্সের দিকে মনোযোগ দিতে চাইছেন। আপনি উইকেট নিয়ে যদি নিজের উপর চাপ তৈরি করেন তাহলে আপনার নিজের পারফরম্যান্সের ওপরেও তা চাপ তৈরি করবে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


কাগজে যেমন ওয়েবেও তেমন
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
সোস্যাল নেটওয়ার্ক
সম্পাদক, প্রকাশক ও মুদ্রাকর : কে.এম. বেলায়েত হোসেন
মেসার্স পিউকি প্রিন্টার্স, নব সৃষ্ট প্লট নং ২০, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা থেকে মুদ্রিত এবং ৪-ডি, মেহেরবা প্লাজা, ৩৩ তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত।
বার্তা বিভাগ : ৯৫৬৩৭৮৮, পিএবিএক্স-৯৫৫৩৬৮০, ৭১১৫৬৫৭, ফ্যাক্স : ৯৫১৩৭০৮ বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন ঃ ৯৫৬৩১৫৭
ই-মেইল : bhorerdk@bangla.net, adbhorerdak@gmail.com,  Developed & Maintenance by i2soft
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি